কর্ণফুলীতে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

জনপদ ডেস্ক: কর্ণফুলী থানার জুলধা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে আনিছ তালুকদার বাড়ির ইয়াছিন আক্তার মুক্তা (১৪) নামে স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।

বুধবার (১৬ জুন) দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ইয়াছিন আক্তার মুক্তা একই এলাকার ইব্রাহীম খলিলের মেয়ে। সে দৌলতপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

মুক্তার ভাই জিসান বলেন, পারিবারিকভাবে মুক্তার পছন্দ মতো বিয়ে ঠিক করা হয়েছে। কিন্তু বাড়ির পাশের দিদার নামে এক যুবক তাকে উত্ত্যক্ত করতো প্রতিনিয়ত। বুধবার দুপুরে পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে ছিল না। ওই সময় দিদারের পরিবারের সদস্যরা আমার বোনকে নানা বিষয়ে অপবাদ দেন ও বকাঝকা করেন। পরে গলায় ফাঁস দিয়ে মুক্তা আত্মহত্যা করে।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শীলব্রত বড়ুয়া বলেন, রাত সোয়া ১টার দিকে স্কুল ছাত্রীর মরদেহ কর্ণফুলী থানা পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে আসে। জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে মরদেহ পাঠানো হয়েছে।