করোনাকালে যদি থাকে শুকনো কাশি

লাইফস্টাইল ডেস্ক: এসময় অনেকেরই হালকা জ্বর হচ্ছে। জ্বরের সঙ্গে থাকে শুকনো কাশি।

কাশি হবে কিন্তু কফ বের হবে না। এটা কিন্তু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রথম লক্ষণ। বিশেষজ্ঞরা বলেন, জ্বর ও শুকনো কাশি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। প্রয়োজনে কোভিড পরীক্ষাও করিয়ে নিন। কাশি কমাতে ও জীবাণু দূর করতে ভিটামিন ‘সি’সমৃদ্ধ খাবার বেশি বেশি খেতে হবে। এটি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে সতেজ, সজীব রাখে এবং প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।

শুকনো কাশি ছাড়াও যদি গলাব্যথা, হাঁচি, সর্দি ও নাক দিয়ে পানি পড়ে, তাহলে হালকা রং চা বারবার খাওয়া, গরম পানি দিয়ে গারগেল করতে হবে।
আরও ভালো উপায় হচ্ছে আদা, লবঙ্গ ও গোলমরিচ পানি মিশিয়ে গরম করলে কালোমতো একটা রং হবে। এর সঙ্গে সামান্য মধু বা চিনি দিয়ে চায়ের সঙ্গে খেলে অথবা এই পানি দিয়ে গারগেল করলে।

এর ফলে গলায় যে ভাইরাসগুলো থাকে সেগুলো মারা যায়। এছাড়াও গলায় গরম লাগার ফলে রক্তপ্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে।

বারবার শুকনো কাশির ফলে গলার টিস্যু ফেটে যেতে পারে। চা এই ইনফেকশন রোধ করে।

আপনার জ্বর হোক বা না হোক এই মুহূর্তে কাশি থাকলে আমাদের সবার উচিত সকালে ঘুম থেকে উঠে, দুপুরে এবং সন্ধ্যায় গার্গল করা।

সুত্র- বাংলানিউজ