রোনালদোর নতুন রেকর্ডের ছড়াছড়ি

স্পোর্টস ডেস্ক: ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো মাঠে নামা মানেই যেন রেকর্ড বইয়ে বেশকিছু ওলটপালট। এই যেমন গত রাতে মাঠে নেমেই গড়ে ফেললেন দুটি রেকর্ড।

আবার ম্যাচের শেষদিকে জোড়া গোল করে গড়লেন নতুন আরেক ইতিহাস। হাঙ্গেরির পুসকাস অ্যারেনায় ইউরোর ‘এফ’ গ্রুপে মঙ্গলবার স্বাগতিকদের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে নেমেই এক রেকর্ড নিজের করে নেন রোনালদো। ইউরোপের খেলোয়াড়দের মধ্যে মেজর টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার কীর্তি গড়েন তিনি। এরপর ফরাসি কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনিকে টপকে ইউরোর সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ডটি নিজের করে নেন পর্তুগিজ উইঙ্গার।

রেকর্ডগুলো গড়ার পথে দলকে দারুণ এক জয় এনে দেন রোনালদো। অথচ ম্যাচের ৮০ মিনিট পর্যন্ত মনে হচ্ছিল, হাঙ্গেরি পর্তুগালকে আটকে রাখবে তো বটেই, বর্তমান ইউরো চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে পুরো তিন পয়েন্টও পকেটে পুরে ফেলতে পারে। কিন্তু রোনালদো তা হতে দেবেন কেন? পর্তুগালও হারেনি। উল্টো বড় এক জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছেন রোনালদোরা।

বিশ্বকাপ ও ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ মিলে মেজর টুর্নামেন্টে রোনালদোর এটি ৩৯তম ম্যাচ। ছাড়িয়ে গেলেন জার্মানির সাবেক ফরোয়ার্ড বাস্তিয়ান শোয়াইনস্টাইগারকে। একই সঙ্গে প্রথম ফুটবলার হিসেবে ইউরোপীয় চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচ আসরে খেলার কীর্তিও গড়লেন রোনালদো।

খেলার মাঝে গোলের রেকর্ডটি গড়েন ৩৬ বছর বয়সী রোনালদো। হাঙ্গেরির জমাট রক্ষণে একের পর এক আক্রমণ ভেস্তে যাওয়ায় পয়েন্ট হারানোর শঙ্কায় পড়েছিল পর্তুগাল। শেষ দিকে পাল্টে যায় চিত্র। ৮৪তম মিনিটে সোভাগ্যের ছোঁয়ায় এগিয়ে যায় তারা। এর তিন মিনিট পরেই সফল স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন রোনালদো। ১০ গোল নিয়ে পা রাখেন গোলদাতাদের তালিকার চূড়ায়। ছাড়িয়ে যান মিশেল প্লাতিনিকে। যোগ করা সময়ে আরেকটি গোল করেন রোনালদো।

পাঁচ আসর মিলিয়ে ২২ ম্যাচে রেকর্ডটি নিজের করে নিলেন রোনালদো। ২০০৪ সালে নিজের প্রথম আসরে ২টি, ২০০৮-এ ১টি, ২০১২ ও ২০১৬ আসরে করেন ৩টি করে। ফ্রান্স কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনি ৯ গোল করেছিলেন এক আসরেই, ১৯৮৪ সালে ৫ ম্যাচে।

বলার অপেক্ষা রাখে না, ইউরোর পাঁচ ভিন্ন আসরে গোল করা একমাত্র ফুটবলারও তিনি। একাধিক আসরে অন্তত ৩ গোল করার একমাত্র কীর্তিও রোনালদোর। তার গোল করার ধরনেও আছে রেকর্ড। আগের ৯টির মতো এবারও ডি-বক্সের মধ্য থেকে জালে বল পাঠিয়েছেন, এর মধ্যে ৫টি হেডে। দুটিই রেকর্ড।

গ্রুপ পর্যায়ে করেছেন তিনি সর্বাধিক ৮টি গোল। ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের ইতিহাসে দুটি ফাইনাল খেলা ৪৪ খেলোয়াড়ের একজন রোনালদো। তিনটি ফাইনাল খেলতে পারেননি কেউ। এবার সুযোগ তার সামনে।

বর্নাঢ্য ক্যারিয়ারে অসংখ্য রেকর্ড ভেঙেছেন ও গড়েছেন। এর মধ্যে আরেকটি দুর্দান্ত রেকর্ড গড়ার পথে এগিয়ে চলেছেন রোনালদো; জাতীয় দলের হয়ে ১৭৫ ম্যাচে তার গোল হলো ১০৬টি। আর তিনটি হলে ইরানের আলি দাইয়ের গড়া ১০৯ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করবেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অরজয়ী।