উত্তরবঙ্গকে পরাধীন হতে দেব না, ফুঁসে উঠলেন মমতা

জনপদ ডেস্ক: উত্তরবঙ্গকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার দাবি নিয়ে এবার মুখ খুললেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার নবান্নে এ নিয়ে কড়া ভাষায় তিনি বলেন, ‘কোনো রকম ‘ডিভাইড অ্যান্ড রুল’ আমরা করতে দেব না। রাজ্য সরকারের অনুমতি ছাড়া এ সব করা যায় না।’ খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোকে নিয়ে পৃথক রাজ্য করার দাবি উঠতে শুরু করেছে বিজেপির অন্দরমহল থেকে। এ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা পোস্টও হয়েছে। বিগত দিনে পৃথক রাজ্যের দাবিতে কেপিপি, জিসিপিএ, মোর্চার আন্দোলন দেখেছে উত্তরবঙ্গ।

এবার উত্তরবঙ্গকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার নতুন দাবি তুলছে বিজেপি। তারই পরিপ্রক্ষিতে সোমবার ফুঁসে উঠলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তিনি বলেন, মনে হচ্ছে যেন মহারাণী নিজেই যেন নিজের ঘরের অলঙ্কার বিলি করছেন। যেন দেশটাকে এমন মনে করছে বিজেপি। এত সহজ? উত্তরবঙ্গ আর দক্ষিণবঙ্গের পার্থক্যটা কোথায়। পশ্চিমবঙ্গ ইস পশ্চিমবঙ্গ। দক্ষিণবঙ্গও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে। উত্তরবঙ্গও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে। কোনো রকম ডিভাইড অ্যান্ড রুল করতে দেব না।রাজ্য সরকারের অনুমতি ছাড়া এসব হবে না।

মমতা বলেন, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল মানে কী? কাশ্মীরের মতো নজরবন্দি করে রাখা? মুখ বন্ধ করে রেখে দেওয়া? তাদের অধিকার কেড়ে নেওয়া? বাংলাটাকে টুকরো টুকরো করতে চেয়ে কার স্বার্থ ওরা মেটাচ্ছে। এত বড় ধাক্কা খাওয়ার পরেও লজ্জা করে না। বাংলা ভাগের দিকে যারা তাকাবে বাংলার মানুষ তাদের উপযুক্ত জবাব দেবে। উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গ দুটোই আমার প্রিয়। দুটোই কন্যা। কোথাও কোথাও দক্ষিণবঙ্গের থেকেও উত্তরের কাজ বেশি হয়েছে।পুরোটা ঢেলে সাজানো হয়েছে। দিল্লিকা লাড্ডু খাবে, সব ভবিষ্যৎ বিক্রি করে দিয়ে। উত্তরবঙ্গকে পরাধীন হতে দেব না। বিজেপির এই দাবিকে ধিক্কার জানাই।