চাকরিতে বয়সসীমা বাড়ানোর আন্দোলনে পুলিশের লাঠিপেটা

জনপদ ডেস্ক: সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩২ করার দাবিতে আন্দোলনকারীদের লাঠিপেটা করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১১ জুন) বিকেলে শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এরপর প্রতিবাদে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নেয়। এ সময় দুই জনকে আটক করে শাহবাগ থানায় নেয়া হয়। এদের একজনের নাম বাকি বিল্লাহ। তিনি পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র।

জানা যায়, আন্দোলনকারীরা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেয়ার চেষ্টা করে। তবে পুলিশের অনুরোধে সেখান থেকে সরে শাহবাগ থানার সামনে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিতে শুরু করে তারা। কিছুক্ষণ পর ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা অঞ্চলের উপকমিশনার হারুন অর রশীদ থানার সামনে থেকে তাদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের বাক বিতণ্ডা শুরু হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ আন্দোলনকারীদের লাঠিপেটা শুরু করে। এ সময় বাকি বিল্লাহকে আটক করা হয়।

আন্দোলনকারীরা বলেন, ‘‘দেশে এখনও করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলমান এবং আরও দীর্ঘ হতে যাচ্ছে। করোনায় শিক্ষার্থীদের প্রায় দুই বছর জীবন থেকে অতিবাহিত হতে চলছে। সরকারের সকল প্রণোদনার পাশাপাশি মুজিববর্ষের ও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তির বছরে আমরা বেকার যুবকরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট প্রণোদনা স্বরূপ সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩২ বছর করার দাবি জানাচ্ছি।’’

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন অর রশীদ বলেন, ‘‘গ্রেপ্তার বা আটক নয়, আন্দোলন থেকে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে। কিসের বা কেন এই আন্দোলন এটা নিয়েই তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। আন্দোলনকারীদের রাজু ভাস্কর্যে যাওয়ার কথা ছিল। থানার সামনে দাঁড়ানোর কোন অনুমতি তাদের ছিল না। তাই তাদের সরিয়ে দেয়া হয়েছে।’’