কোয়ারেন্টিনে ভর্তুকি পাবেন সৌদিগামী সব কর্মী

জনপদ ডেস্কঃ সৌদি আরবগামী নতুন-পুরাতন সব প্রবাসী কর্মী হোটেলে কোয়ারেন্টিন খরচের সরকারি ভর্তুকি পঁচিশ হাজার টাকা পাবেন। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) স্মার্ট কার্ডধারী কিংবা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হিসেবে নিবন্ধিত কর্মীদের এই ভর্তুকি দেওয়া হবে।

এতে জানানো হয়, মহামারি কোভিড-১৯ বিস্তার রোধকল্পে সৌদি আরব সরকার কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনা অনুযায়ী, গত ২০ মে থেকে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত যেসব প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মী ছুটি শেষে নিজ খরচে সৌদি আরবে বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন পালন করেছেন বা করবেন তাদের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড থেকে কর্মী প্রতি ২৫ হাজার টাকা করে ভর্তুকি দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। নতুন কর্মীদের আবেদনের প্রেক্ষিতে এই সুবিধায় তাদেরও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এই ভর্তুকির টাকা সংশ্লিষ্ট কর্মী বা তার মনোনীত প্রতিনিধির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

যেভাবে আবেদন করতে হবে 
সংশ্লিষ্ট কর্মীরা প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট www.probashi.gov.bd অথবা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ওয়েবসাইট www.wewb.gov.bd অথবা জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর ওয়েবসাইট www.bmet.gov.bd থেকে আবেদনপত্র ডাউনলোড করে কিংবা দেশের ০৩টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবস্থিত প্রবাসীকল্যাণ ডেস্ক থেকে সংগ্রহ করে তা পূরণ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ ফ্লাইটের দিন বহির্গমনের আগে বিমানবন্দরে প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কে জমা দিতে বলা হয়েছে।

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র
জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) দেওয়া স্মার্টকার্ড বা ইমিগ্রেশন ক্লিয়ারেন্স কার্ডের ফটোকপি, পাসপোর্টের প্রথম চার পৃষ্ঠার ফটোকপি, পাসপোর্টে সংযুক্ত ভিসার ফটোকপি, টিকেটের ফটোকপি ও হোটেল বুকিংয়ের ডকুমেন্টের ফটোকপি।

সৌদি আরব প্রবাসী যেসব কর্মী ইতোমধ্যে সৌদি আরব চলে গিয়েছেন এবং নিজ ব্যয়ে কোয়ারেন্টিন সম্পন্ন করেছেন বা করছেন তাদেরও একই নিয়মে সংশ্লিষ্ট আবেদনপত্র পূরণ করে ৩০ জুনের মধ্যে সৌদি আরবস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস, রিয়াদ অথবা বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল, জেদ্দায় ডাক মারফত জমা দিতে হবে।