রাজশাহীতে অশ্লীল লাইকি ভিডিও বানানোর অপরাধে গ্রেফতার ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী মহানগরীতে এবার টিকটকের পর  লাইকি ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে ছেড়ে স্কুল-কলেজ পড়ুয়া তরুন তরুনীদের বিপদগামী করার অপরাধে ৪ জনকে আটক করেছে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

আজ ৭ জুন (সোমবার) দুপুর ১২ টায় আরএমপি সদর দপ্তর কনফারেন্স রুমে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার  আবু কালাম সিদ্দিক এক সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান।

এর আগে গত ১ জুন ২০২১ অশ্লীল ও আপত্তিকর ভিডিও বানানোর অপরাধে রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে অভিযান চালিয়ে ৯ জনকে আটক করেছিলো আরএমপি ডিবি ।

আরএমপি’র পুলিশ কমিশনার  আবু কালাম সিদ্দিকের নির্দেশে উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) আরেফিন জুয়েলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে রাজশাহী মহানগরীকে কিশোর অপরাধ ও অশ্লীলতা মুক্ত করার লক্ষে গত ৬ জুন সন্ধ্যা হতে রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন দর্শনীয় স্পটে আরএমপি ডিবি পুলিশের একটি বিশেষ টিম গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়েছে

অভিযানে পদ্মা গার্ডেন, ভদ্রা পার্ক, জিয়া পার্ক, বিমান চত্তর, টি বাঁধ, আই বাঁধ এলাকা হতে অশ্লীল ও আপত্তিকর লাইকি ভিডিও বানানোর অপরাধে ৪ জনকে আটক করে। যার মধ্যে দুইজন নারীও রয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন-পবা কানপাড়া এলাকার ওয়ারেশ আলী ছেলে মেহেদী হাসান ইমন(২০), মতিহার থানার খােজাপুর গােরস্থান এলাকার সবুজ আহম্মেদের স্ত্রী তানিশা তানি ইসলাম বিউটি ( ২৬ ), চন্দ্রিমা থানার মুশরইল বার রাস্তার মােড় এলাকার শাকিল হােসেনের ছেলে রাব্বি ওরফে রােমিও ( ২৩ ), লক্ষীপুর কাঁচাবাজার এলাকার ভাড়াটিয়া এবং নওগাঁর মান্দার আতাউর রহমানের মেয়ে আকলিমা খাতুন, বেবী,সুলতানা তিশা,পায়েল ( ২০ )।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ কমিশনার আরো বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে লাইকি গ্রুপের ভিডিও তৈরীর মুল হোতা গ্রেফতারকৃত আসামী মেহেদী হাসান জানায়, সে লাইকি ভিডিও তৈরি করে প্রতি মাসে প্রায় আট থেকে দশ হাজার টাকা আয় করে এবং কোমলমিত, অভাবী, কিশোর-কিশোরী, কমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে এ সমস্ত অশ্লীল ও আপত্তিকর ভিডিও তৈরি করতো।

রাতারাতি  জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য অনেকেই এধরনের ভিডিও তৈরি করে নৈতিকভাবে ধ্বংসের পথে পা বাড়াচ্ছে। অশ্লীল ও আপত্তিকর টিকটক, লাইকি ও বিগো লাইভ ভিডিও সমাজের নৈতিক অবক্ষয় ও যুবক সমাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এমনকি অনেকে বিভিন্ন ধরনের অপরাধের সাথে জড়িয়ে পরাসহ মাদক সেবন এবং মাদক ব্যবসায় জড়িত হচ্ছে। এ ধরনের ভিডিও কিশোর অপরাধের মতো ঘটনা উস্কে দিচ্ছে।

 রাজশাহী মহানগরীতে অশ্লীলতা প্রতিরোধে এই ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে আরএমপি সূত্র তা নিশ্চিত করেছেন।