অলিম্পিকের আগে বড় ধাক্কা ভারতীয় শিবিরে

জনপদ ডেস্কঃ টোকিও অলিম্পিক থেকে ভারতের সর্বাধিক পদক যে বিভাগগুলো থেকে প্রত্যাশা করা হচ্ছে তার অন্যতম কুস্তি। তবে অলিম্পিকের আগে সেই ভারতীয় কুস্তির লজ্জা বাড়ালেন সুমিত মালিক।

শুক্রবার (৪ জুন) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম কলকাতা ২৪ ঘণ্টার প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ডোপ টেস্টে ধরা পড়েছেন কুস্তিগির সুমিত। তাকে সাময়িকভাবে নির্বাসিত করেছে বিশ্ব কুস্তি সংস্থা।

সুমিত দ্বিতীয় ভারতীয় বক্সার, যিনি কোনো অলিম্পিকের আগে ডোপিংয়ের জালে জড়ালেন। এর আগে ২০১৬ সালে একই কারণে কুস্তিগির নরসিং পঞ্চম যাদব রিও অলিম্পিকে অংশ নিতে পারেননি।

সুমিত একটি আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিলেন। সেখানেই তার ডোপ পরীক্ষা করা হয়। সেই পরীক্ষার রিপোর্টে দেখা যায়, তিনি নিষিদ্ধ সামগ্রী গ্রহণ করেছেন। যদিও সুমিতের আরও একটি ডোপ পরীক্ষা করা হবে। সেটির ফলও যদি পজিটিভ আসে তবে তাকে কুস্তি থেকে দীর্ঘ সময়ের জন্য নির্বাসিত করা হতে পারে।

ভারতের কুস্তি ফেডারেশনের একটি সূত্র জানিয়েছে, সুমিতের দ্বিতীয় পরীক্ষার জন্য নমুনা চলতি মাসের ১০ তারিখ নেওয়া হবে। আর রিপোর্ট এই মাসের শেষে জানা যাবে।

সুমিত গত মাসেই কুস্তির ১২৫ কেজি বিভাগে প্রথমবারের জন্য অলিম্পিকে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করার যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন। তবে তিনি ডোপ পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়ায়, তার অলিম্পিকে যাওয়া নিয়ে সংশয় তৈরি হয়ে গেল। এবারের অলিম্পিকে মোট আটজন ভারতীয় কুস্তিগির অংশগ্রহণের যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন। তবে সুমিত না যেতে পারলে অলিম্পিকে ভারতের পদক জয়ের সম্ভাবনাও খানিক কমে গেল।

ভারতের কুস্তি ফেডারেশনের (ডব্লিউএফআই) এক সূত্র সংবাদসংস্থা পিটিআইকে (পিটিআই) এই বিষয়ে বলেছে, ‘বিশ্ব কুস্তি সংস্থা বৃহস্পতিবারই (৩ জুন) সুমিতের ডোপ পরীক্ষায় ব্যর্থ হওয়ার বিষয়টি জানিয়েছে। এবার জুনের ১০ তারিখে ওকে দ্বিতীয় পরীক্ষার জন্য নিজের ‘বি’ স্যাম্পেল জমা দিতে হবে’।