মুষলধারে বৃষ্টি, স্বস্তিতে বরিশালবাসী

জনপদ ডেস্ক: প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাব কেটে যাওয়ার পর গরম বেড়ে যায় বরিশালে। তবে সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি সেই গরম থেকে স্বস্তি এনে দিয়েছে নগরবাসীকে।

টানা চার ঘণ্টাব্যাপী বৃষ্টি ঝরেছে জেলায়। এতে দীর্ঘ তিনমাস ধরে অনাবৃষ্টি ও তপ্ত আবহাওয়ায় ত্রাহিদশা থেকে মুক্তি পেল বরিশাল অঞ্চলের মানুষ।

বরিশাল বিভাগীয় আবহাওয়া অধিদফতরের পর্যবেক্ষক হুমায়ূন কবির জানান, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবেও বরিশালে উল্লেখযোগ্য কোনো বৃষ্টিপাত হয়নি। তবে ঝড়ো আবহাওয়ার সঙ্গে প্রচণ্ড বাতাস ছিল, কখনো কখনো গুঁড়ি গুঁড়ি ও হালকা বৃষ্টি হয়েছে।

তিনি জানান, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব কেটে যাওয়ার পর সোমবার (৩১ মে) প্রথম বৃষ্টি হলো। সকাল ১০টা ১০ মিনিটে শুরু হয়ে দুপুর সোয়া ২টা পর্যন্ত একটানা বর্ষণ চলছে। এই সময়ে বরিশালে ৩৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়। এরপর দমকা হাওয়ার সঙ্গে কখনো ইলশে গুঁড়ি, কখনো হালকা বৃষ্টি হচ্ছে।

বৃষ্টির কারণে বরিশালের তাপমাত্রা কমে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ২৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। বাতাসের আর্দ্রতার পরিমাণ ছিল ৯৯ শতাংশ। তবে বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় মাত্র ২ নটিক্যাল মাইল।

এদিকে টানা বৃষ্টি হলেও নগরের প্রধান সড়কগুলোতে কোনো ধরনের জলাবদ্ধতা লক্ষ্য করা যায়নি। তবে নিম্নাঞ্চলসহ উপজেলাগুলোর ভাঙা সড়কের খানাখন্দে পানি জমে গেছে। এতে নাগরিকদের চলাচলে সাময়িক অসুবিধাও দেখা দিয়েছে। তবে বৃষ্টিতে গরম কমে যাওয়ায় স্বস্তির কথাই জানিয়েছেন মানুষ।