ভূমিকম্পে সিলেটে হেলে পড়েছে ৬ তলা ভবন

জনপদ ডেস্কঃ দুদিনে পর পর ছয়বার ভূমিকম্পে সিলেটে হেলে পড়েছে একটি ছয়তলা ভবন। শনিবার নগরীর পাঠানটুলা দর্জিবাড়ী এলাকায় আহাদ টাওয়ার নামে ওই ভবনটি হেলে পড়ে। রোববার সকাল থেকে ভবনের ১১টি ইউনিটের বাসিন্দারা অন্যত্র সরে যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।

সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানান, ভবনটির নকশা আমার হাতে রয়েছে। ভবনটি যথাযথভাবে নির্মাণ ও অনুমোদন নেওয়ার পর কোনো পরিবর্তন করা হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার বিএম আশরাফ উল্লাহ তাহের বলেন, ভবনটির মালিক থাকেন বাহরাইনে। একজন তত্ত্বাবধায়ক ভবনের দেখাশোনা করেন। ওই ভবনের বাসিন্দাদের দ্রুত নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

সিলেটে রোববার ভোর ৪টা ৩৫ মিনিটে ফের মৃদু মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। তবে ভূমিকম্পটির মাত্রা কত ছিল তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

এর আগে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সাড়ে ৪ ঘণ্টায় পর পর পাঁচবার মৃদু ভূকম্পন হয়েছে সিলেটে। এ ভূকম্পনে সিলেটজুড়ে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

সর্বশেষ শনিবার দুপুর ১টা ৫৮ মিনিটে পঞ্চমবার ভূমিকম্প অনুভূত হয়। এর আগে সকাল ১০টা ৩৭ মিনিটে প্রথম, ১০টা ৫১ মিনিটে দ্বিতীয়, বেলা ১১টা ২৯ মিনিটে তৃতীয় এবং ১১টা ৪০ মিনিটে চতুর্থবার ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

বাংলাদেশ ভূমিকম্প পর্যবেক্ষণ ও গবেষণা কেন্দ্র বলছে, তারা চার দফা ভূকম্পন রেকর্ড পেয়েছে। মাত্রা কম থাকায় দু-একটি পর্যবেক্ষণে আসেনি।

তবে এসব ভূকম্পনের মধ্যে একটির মাত্রা রিখটার স্কেলে সর্বোচ্চ ৪.১ এবং এর কেন্দ্রস্থল ঢাকা থেকে ১৯২ থেকে ২৩৫ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব অর্থাৎ সিলেট অঞ্চলে।

সিলেট আবহাওয়া অফিসসূত্রে জানা যায়, সিলেটে ছয়বার ভূমিকম্প অনুভূত হলেও চারবারের ভূমিকম্প ধরা পড়েছে। এর মধ্যে সর্বশেষ দুপুর ১টা ৫৮ মিনিটে অনুভূত হওয়া ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৪।

এর আগে ১০টা ৫১ মিনিটে দ্বিতীয় ভূমিকম্পের মাত্রা রিখটার স্কেলে ৪ দশমিক ১ মাত্রার ছিল। ১০টা ৩৭ মিনিটে যে ভূমিকম্প হয়েছিল, সেটি রিখটার স্কেলে ছিল ৩ এবং ১১টা ২৯ মিনিটে যেটি হয়েছিল, সেটি ২ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প ছিল।